April 17, 2015

কমফর্ট ফুড

যাহা খাদ্য তাহাই কমফর্টের সাথে সম্পর্কিত। খাদ্য-খাদক সম্পর্ক সেই কমফর্টের ভিত্তিতেই তো চলে মশাই। কমফর্ট ফুড পেটে খেলে তবেই যে পিঠে কমফর্টেবলি সয়।

ছবি সৌজন্য : গুগল

“খাবার জন্যই তো বেঁচে আছি রে পাগলা...” সামনে একপ্লেট মাটন বিরিয়ানী পেলে পাড়ার পঞ্চুদার তো অন্তঃত এটাই মনে হয়। বিরিয়ানী তে একটা খাসা খাসির পিস আর আলুর বড়সড় টুকরো পেলেই তাঁর জীবন সার্থক। হায়রে... জীবনের সব চাহিদাগুলি যদি এরকমই সহজ সরল হত...
            
এমনিতে পঞ্চুদা চাপ নিতে নয় দিতে বিশ্বাসী কিন্ত‍ু বিরিয়ানির সাথে (চিকেন)চাপটা না নিলে নাকি ঠিক ব্যাপারটা জমেনা। তাই কমফর্ট ফুড মানেই বিরিয়ানি উইথ চাপ ফর পঞ্চুদা।

“বিরিয়ানি আর চাপ? সে তো লাক্সারী রে।” পঞ্চুদার দাদার বক্তব্য আবার একেবারেই আলাদা। “অমন মোঘলাই জিনিস খেয়ে পেটে যখন মোচর দেবে তখন কে বাঁচাবে?” দাদার মন্তব্য কিন্ত‍ু একেবারেই ফেলে দেওয়া যায় না। তারপর আবার মোরা বাঙালি, জোয়ানের আড়ক ও জেলুসিলের আনঅফিসিয়াল ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর। তাই বিরিয়ানীর সাথে কমফর্ট কে ম্যাচ করানোটা অনেকের কাছেই চাপের।
                 
তাহলে কমফর্ট ফুডটা ঠিক কী? যদি বলি রোব্বারে ভাতের পাতে কচি পাঁঠার ঝোল? শীতকালে গুড়ঢালা গরম রসগোল্লা? বৃষ্টির দিনে পেঁয়াজি হাতে বেগুনীর সাথে পরকীয়া? গরমের দুপুরে শুক্তোনি? ডিমটোস্ট, সাথে ঘুঘনি? কোনটা হবে?

ছবি সৌজন্য : গুগল

অনেকে আবার বলে ভাই ডাল-ভাত-আলুভাজা/আলুপোস্ত। কেউ বলে নুন-লঙ্কা দিয়ে কাঁচা আম মাখা। লিস্টির কিন্ত‍ু শেষ নেই। আবার পশ্ রেস্তোরার চিকেন পিৎজা কিংবা বার্গারটাও থাকে অনেকের কমফর্ট ফুডের তালিকায়। তা সে যতই ক্যালরী হোক।
                   
সে যাই হোক না কেন, কমফর্ট ফুডের সাথে মনে হয় রাঁধুনীরও একটা প্রগাঢ় সম্পর্ক আছে। তা না হলে পাঁঠার ঝোলটা ঠিক মায়ের হাতেরই চাই কেন? শুক্তোতে দিদার রেসিপি-ই বেস্ট কি করে? ডিমটোস্ট মানে শুধুই কী কলেজের বাইরে হরিদার দোকান?

আবার টানা তিন-চার দিন নানা অনুষ্ঠানবাড়ি ঘুরে প্রাণ ভরে পোলাও, মাংস, দই, মিষ্টি সাঁটিয়ে যখন মন-মেজাজ অতিপৃক্ত, তখন বোঝা যায় সাধারন ডাল ভাতের কী মহিমা।
              
ভোজনরসিকদের কাছে প্লেন কাঁচকলার ঝোল নাইটমেয়ারের থেকে মোটেও কিছু কম নয়। অথচ পাচনশক্তি যখন বিশ্রীভাবে ডিচ্ করে, এই কাঁচকলার ঝোলই সেভিয়ার হয়ে এগিয়ে আসে।

কমফর্ট ফুডের ধারনা আমারও একটা আছে বইকি। একটা সুন্দর বিকেল। বিবেকানন্দ পার্ক। হাতে শালপাতা। মুখে ফুচকা। চোখ বন্ধ আর মনে তৃপ্তি। সিম্পল।
ছবি সৌজন্য : গুগল

No comments:

Post a Comment