June 15, 2015

পটা পল্লবী এবং পেঁয়াজি

ছবি সোজন্য : আনন্দবাজার
পাতলা করে কাটা বেগুনের ফালির গায়ে পটুত্বের সাথে ফ্যাটানো ব্যাসনের কোমল আদর। তারপর ডুবো তেলের উষ্ণ তত্ত্বাবধানে বেগুন ও ব্যাসনের ক্রিস্পি সম্বনয়। মুচমুচে ভাজা গরম বেগুনী অ্যাট ইওর সার্ভিস...

বর্ষামাখা সবুজ সন্ধ্যাবেলা এমন একটা উত্তেজক দৃশ্য দেখে কি আর বেগুনী খাওয়ার লোভ সামলানো যায়?

কখনই না!
          
Preparing telebhaja is an art. শিল্প, বুঝলি।

বেগুনী মন্ত্রে মুগ্ধ হয়ে দিব্যঞ্জানটা দিল পটা। চোখ তার তখনও বন্ধ। যেন সকল ইন্দ্রিয় দিয়ে বেগুনীর মোহময়ী আস্বাদ ধরে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করছে।

How unhygienic! এসব ভাজাভুজি খাস বলেই তো...”

“থাম তুই! বর্ষার ঝিমঝিমে সন্ধ্যাবেলায় এই পারফেক্ট বেগুনীর উষ্ণতা যে কী তা তোর মত ডায়েটের দাসত্ব স্বীকার করা লোকজন কী আর বুঝবে?”

পটার অকাট্ট যুক্তি পল্লবীর কোঁচকান ভ্র-কে একটুও সোজা করতে পারল না।

আরও দুটো পেঁয়াজি হাতে অবশেষে পটা তেলেভাজার দোকান ত্যাগের কঠিন সিদ্ধান্ত নিল।
                 
“ফুলুরিটাই বা ছাড়লি কেন???” "আনহাইজিনিক" তেলেভাজার উদ্দেশ্যে পল্লবীর বিদ্রুপ কেমন যেন ঝাল চাটনির মত ধেয়ে এল।

“তোর কী ক্ষিদে পেয়েছে? চাইলে দিতে পারি।” অফারটা রিজেক্টেড হবে যেনেও পটা ভদ্রতার খাতিরে করেই ফেললো।

How can you eat something like this?” এত তেল! তাও কি তেল কেউ জানেনা।

“স্বাদ তো জানলিনা তাই তেল নিয়ে তোর এত চিন্তা। এ হল কিনা গিল্টি প্লেজার। গিল্টি কিন্ত‍ু প্লেজার তো।”

পল্লবী এবার আরও ক্ষেপে যাচ্ছে। পটা কিন্ত‍ু পেঁয়াজি সাধনায় ব্যাস্ত।

চশমা পড়ার অনেক উপকারীতা... তার একটা পটা হঠাৎ অবিষ্কার করল পেঁয়াজিতে কামড় বসাতে গিয়ে। চশমার উপর দিয়ে, আড়চোখে বেশ স্পাইগিরি করা যায় কিন্ত‍ু।

তা স্পাই পটার কি চোখে পড়ল? লোলুপ দৃষ্টি, হেল্থ কনসাস পল্লবীর।

“এবার আমার পেটখারাপ হবেই।”

“হুঃ এতক্ষণে হুঁস হল?” পটার কমেন্টের উত্তরে পল্লবীর দীর্ঘশ্বাস ভেঁসে এল।

পটাও ছেড়ে দেওয়ার পাত্র নয়, “হ্যাঁরে, এতক্ষণে যে রিয়ালাইজ করলাম তুই লোভ দিচ্ছিস!”

“আমি???” পল্লবীর মুখ বিষ্ময়ে হাঁ!

“এবার আর পেটখারাপ হবে না।” পল্লবীর বিষ্মিত হাঁ মুখে পটা সুযোগ বুঝে টুক করে পেঁয়াজির টুকরোটা চালান করে দিল।

“আরে...” পল্লবী চিৎকার করল ঠিকই কিন্ত‌ু পেঁয়াজিটা ফেলে দিল না।

“কেমন?” চশমার ফাঁক দিয়ে পটার আবার উঁকিঝুঁকি।

পল্লবীর এখন খেতে ব্যাস্ত। উত্তর দেওয়ার সময় নাই মোটে।

No comments:

Post a Comment